উত্তরণ

অজস্র শব্দের সোরগোলে হারিয়ে যায়
বারবার — আমার আর্তনাদের হাহাকার
তাকিয়ে দেখি নিস্তব্ধতার অনিমেষ অন্ধকার
আকার-এর মতো দীর্ঘ পরিক্রমা — শূন্যতার।

আকাশের মতো বিশাল মৌনতার স্লোগান
সারি সারি সারিগান ভাঙে একনিষ্ঠ ধ্যান
মান অভিমান ভুলে যাই। তাই —
জোয়ারের মতো ঝংকারে প্লাবিত হয় প্রাণ।

যেখানে থেমে গিয়েছিল শতাব্দীর সুর
বেসুরো সুরে পুড়ে ছাই হয়েছিল অনন্তপুর
এরপর হরদম হৈ-হুল্লোড় — দূর বহুদূর
স্তব্দ ঘোড়ার খুঁড়, স্মৃতিহীন অাঁধারের কুড়।

হঠাৎ পরপর ভেঙে গেছে ব্যথাতুর নদীর কূল
মাটি চাপা পড়েছে ভুল, ঝড়ে ঝরেছে ফুল
কালবৈশাখীর চোখে দিয়েছি আঙুল
যুগের চক্ষুশুল — আমার বিনাশে সবাই ব্যাকুল।

দিনের তারকার মতো নিষ্প্রভ কবিতার লাইন
একে একে ভেঙে পড়েছে সব আইন
পরিশেষে ঘটল উত্তরণ — মুক্তির স্বাদ আস্বাদন
ভেঙেচুরে নতুন অঙ্গিকে পুরাতনের শুভ উদ্বোধন।

১ ফেব্রুয়ারি ২০২২
~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.