ভাটারায় প্রেমিকার বাসা থেকে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র ভোলার ছেলে আশিকের লাশ উদ্ধার

জধানীর ভাটারায় প্রেমিকার বাসা থেকে আশিক এলাহী নামে এক বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। মঙ্গলবার রাজধানীর ভাটারার কুড়িল পূর্বপাড়া থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়।

মেয়ের পরিবার আশিককে বাসায় ডেকে নিয়ে পিটিয়ে হত্যা করে আত্মহত্যা বলে প্রচার করছে বলে আশিকের পরিবার থেকে অভিযোগ করা হয়েছে। আশিক আমেরিকান ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির (এআইইউবি) চতুর্থ সেমিস্টারের ছাত্র ছিলেন।

আশিক এলাহীর বড় ভাইয়ের বন্ধু ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূ-তত্ত্ব ও খনি বিদ্যা বিভাগেরর ছাত্র নাজমুস সাকিবের অভিযোগ, এআইইউবির চতুর্থ সেমিস্টারের শিক্ষার্থী ফারিয়ার সঙ্গে আশিকের সম্পর্ক ছিল। ভাটারায় ফারিয়াদের বাসায় আশিক জানালার গ্রিলের সঙ্গে রশি পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করেছে বলে আজ সকালে মেয়ের পরিবার থেকে জানানো হয়। তারাই আশিককে মৃত অবস্থায় উদ্ধার করে কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যায়। কিন্তু ৫ ফুট ৮ ইঞ্চি লম্বা আশিক কিভাবে জানালার গ্রিলে রশি পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করবে? আমরা আশিকের এক হাতে জখমের চিহ্ন দেখেছি। ফারিয়ার পরিবার খুবই প্রভাবশালী। আমরা ধারনা করছি, আশিককে তাদের বাসায় ডেকে নিয়ে পিটিয়ে হত্যার পর আত্মহত্যা বলে প্রচার করছে।

 

আশিকের পরিবারের অভিযোগ, তাকে বাসায় ডেকে নিয়ে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে। নিহতের বাড়ি ভোলার বোরহানউদ্দিন উপজেলায়। বর্তমানে তার মৃতদেহ কুর্মিটোলা হাসপাতালে রাখা হয়েছে।

নিহতের ভাই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জিওলজি বিভাগের মাস্টার্সের ছাত্র আল আমিন (২৫) যুগান্তরকে জানান, মঙ্গলবার সকালে তার ছোট ভাইয়ের এক সহপাঠীর (প্রেমিকা) ফোন পেয়ে তার বাসায় যান। সেখানে গিয়ে তিনি তার ছোট ভাইকে মৃত অবস্থায় পান বলে জানান।

আশিক কুড়িলের একটি মেসে থেকে আমেরিকান ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগে চতুর্থ সেমিস্টারে পড়তেন। তার বাড়ি ভোলায়।

 

 

আপনার মন্তব্য জানান

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.