নিখোঁজ সৌদি সাংবাদিক কনস্যুলেটে খুন হয়েছে দাবি তুরস্কের

সৌদি আরবের সরকারবিরোধী নিখোঁজ সাংবাদিক জামাল খাশোগি ইস্তানম্বুলে সৌদি কনস্যুলেটের মধ্যে হত্যা করা হয়েছে বলে দাবি করছে তুরস্ক।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক তুরস্কের এক কর্মকর্তরা বলেছেন, সৌদি কনস্যুলেটের ভেতরে ওই সাংবাদিককে হত্যা করে তার লাশ সেখান থেকে সরিয়ে ফেলা হয়েছে।

তুর্কি পুলিশ প্রাথমিক তদন্ত শেষে বলেছে, খাশোগি ইস্তানবুলস্থ সৌদি কনস্যুলেটেই নিহত হয়েছেন। তাকে পূর্বপরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে এবং হত্যার পর পরই লাশ কনস্যুলেটের বাইরে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

সৌদি রাজতন্ত্রের ঘোর বিরোধিতাকারী খাশোগি ২০১৭ সাল থেকে আমেরিকায় স্বেচ্ছানির্বাসিত জীবন কাটাচ্ছিলেন। সরকারবিরোধীদের বিরুদ্ধে সৌদি যুবরাজ মোহাম্মাদ বিন সালমান ব্যাপক ধরপাকড় অভিযান শুরু করার পর তিনি যুক্তরাষ্ট্রে চলে যান।

গত মঙ্গলবার বিয়ে করার জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র আনতে তিনি ইস্তানবুলস্থ সৌদি কনস্যুলেটে প্রবেশ করেন। এ সময় তার হবুবধূ কয়েক ঘণ্টা কনস্যুলেটের বাইরে অপেক্ষা করেন। কিন্তু খাশোগি সেখান থেকে বের না হওয়ার পর ওই নারী তুরস্কের পুলিশের কাছে অভিযোগ করেন।

ওই অভিযোগ দায়েরের কয়েক ঘণ্টা পর সৌদি কর্মকর্তারা দাবি করেছেন, খাশোগি সৌদি কনস্যুলেট থেকে চলে গেছেন। আঙ্কারা বলছে, সৌদি আরবের এই দাবির পক্ষে তারা কোনো প্রমাণ দেখাতে পারেনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.