বোরহানউদ্দিনে বিয়ের প্রলোভনে গণধর্ষণ ” থানায় মামলা” আটক -২

ভোলা প্রতিনিধিঃ ভোলার ভোলার বোরহানউদ্দিন উপজেলার দেউলা ইউনিয়নের ৩ নং ওয়ার্ডের (২০) বছরের স্বামী পরিত্যক্তা এক নারিকে প্রেমের সম্পর্কের জেরে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে নিয়ে বন্ধুদেরসহ গনধর্ষণের অভিযোগ এনে বোরহানউদ্দিন থানায় একটি মামলা করেছে ভিক্টিম।
বৃহস্পতিবার বোরহানউদ্দিন থানায় মামলাটি হয়। যাহার নং ১৫ । তারিখ ২২-০৪-২০২১ ইং।

মামলার ২ নং আসামি দেউলা ইউনিয়নের ৭ নং ওয়ার্ডের আব্দুল ফকিরের ছেলে রাকিব (২৫) ও ৪ নং আসামি বাবুল কাচারির ছেলে মিজান (২৩) কে আটক করেছে মামলার তদন্তকারী কর্মকার্তা (ওসি তদন্ত) বশির আলম।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সাচড়া ইউনিয়ন এলাকা থেকে অভিযান চালিয়ে তাদেরকে আটক করা হয়।

মামলার সুত্রে জানা যায়, দেউলা ৩ নং ওয়ার্ডের ওই নারির সাথে মামলার ১ নং আসামি দেউলা ইউনিয়নের ৭ নং ওয়ার্ডের আব্দুর রশিদের ছেলে মিরাজ (২৫) এর সাথে দির্ঘ ৬ মাস যাবত মোবাইল ফোনে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। আর সেই সুত্রধরে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে গত ১৯-০৪-২০২১ ইং তারিখ সোমবার রাতে দেউলা ৩ নং ওয়ার্ডের তাজল বিস্বাসের সুপারির বাগানে প্রথমে ধর্ষণ করে ১ নং আসামি মিরাজ। পরে মামলার ১ নং আসামি মিরাজের বন্ধু রাকিব, মিজানসহ অন্য আসামিরা ভিক্টিমকে গণধর্ষণ করে।
বোরহানউদ্দিন থানার ওসি মাজহারুল আমিন (বিপিএম) জানান, গনধর্ষনের ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে। মামলার ২ নং আসামি রাকিব ও ৪ নং আসামি মিজানকে গ্রেফতার করেছি। মামলার বাকি আসামি গ্রেফতারের চেষ্টা চলমান আছে । মামলার তদন্ত চলমান আছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.