ভোলা-৩ আসনে আ’লীগের মনোনয়ন ফরম ক্রয়ের হিড়িক

দৈনিক ভোলা বার্তা, স্টাফ রিপোর্টারঃ
আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ১১৭ ভোলা-৩ লালমোহন ও তজুমদ্দিন আসনে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামীলীগের প্রার্থীর ছড়াছড়ি।দলীয় মনোনয়ন ফরম বিক্রির দ্বিতীয় দিন পর্যন্ত এ আসনের জন্য মনোনয়ন ফরম ক্রয় করেছেন ১১জন।

মনোনয়ন ফরম ক্রয় করেছেন, লালমোহন ও তজুমদ্দিন আসনের বর্তমান সাংসদ নুরুন্নবী চৌধুরী শাওন, এই আসনের সাবেক সংসদ সদস্য মেজর (অবঃ) জসিম উদ্দিন ও বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ইঞ্জিনিয়ার মীর মোবাশ্বের আলী স্বপন।

শুক্রবার (৯ নভেম্বর) মনোনয়ন ফরম বিক্রির প্রথম দিনেই দলীয় ফরম সংগ্রহ করেছেন তাঁরা।
আওয়ামীলীগ সমর্থীত চেয়ারম্যান ও কাউন্সিলরদের মনোনয়ন ফরম সংগ্রহে দলীয় নিষেধাজ্ঞা থাকলেও ফরম সংগ্রহ করেছেন লালমোহন উপজেলা চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ গিয়াস উদ্দিন আহমদ।

এছাড়াও মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছেন, লালমোহন উপজেলা আওয়ামীলীগ যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক দিদারুল ইসলাম অরুন, পৌর সম্পাদক বাদল পঞ্চায়েত, লালমোহন উপজেলার সাবেক চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগ সাবেক সভাপতি একেএম নজরুল ইসলাম, বর্তমান সাংসদ শাওন পত্নি ফারজানা শাওন রত্না, তজুমদ্দিন উপজেলাধীন সাবেক চেয়ারম্যান মো. জাহাঙ্গীর আলম, মো. নাছির হাওলাদার।জানা যায়, মনোনয়ন সংগ্রহ করবেন তজুমদ্দিন উপজেলা চেয়ারম্যান ফজলুল হক দেওয়ান।

সূত্র জানায়, এ আসনটি ২০০৮ সালের আগ পর্যন্ত বিএনপির দূর্গ হিসেবে পরিচিত ছিল। বিএনপি প্রার্থী মেজর (অবঃ) হাফিজ উদ্দিন আহমেদ এ আসন থেকে পরপর ৬বার সংসদ সদস্য হয়েছিলেন।তিনি বিএনপি জোট সরকারের পাটমন্ত্রী, পানিসম্পদ মন্ত্রীর দায়িত্ব ও পালন করেছিলেন।২০০৮ সালের নির্বাচনে আওয়ামীলীগ প্রার্থী মেজর জসিম উদ্দিন আহমদ বিপুল ভোটে জয়ী হয়ে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন।

কিন্তু দেড় বছরের মাথায় বিএনপি প্রার্থীর করা একটি মামলায় মেজর অবঃ জসিম উ্দ্দিনের সংসদ সদস্য পদ বাতিল ঘোষণা করেন আদালত। ফলে ওই আসনটি শূণ্য ঘোষণা হলে ২০১০ সালের ২৪ এপ্রিলের উপনির্বাচনে আওয়ামীলীগ প্রার্থী হয়ে আসেন বর্তমান সাংসদ নুরুন্নবী চৌধুরী শাওন।তিনি ২০১৪ সালের নির্বাচনেও অংশগ্রহণ করে দ্বিতীয়বারের মত সাংসদ নির্বাচিত হন।

বর্তমানে ওই আসনটির জন্য দলীয় মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছেন ১১ জন প্রার্থী। ক্রয়ের এ হিড়িক সম্পর্কে সূত্র বলছে, বর্তমান সাংসদের স্বজনপ্রিতি ও বিএনপি নেতাকর্মীদের কে দলে ভিড়িয়ে আওয়ামীলীগের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পদে আসীন করা, সর্বোচ্চ সুযোগ সুবিধা দেয়া এবং দলীয় ত্যাগী কর্মীদের কে দুরে রাখতে মারধর, গৃহবন্ধি, মিথ্যে মামলায় জড়ানোর ফলে দলের নেতাকর্মীদের মধ্যে বিভেদ সৃষ্টি হয়েছে। ফলে ওই আসনটির জন্য আওয়ামীলীগের মনোনয়ন ফরম বিক্রির দ্বিতীয় দিনেই ১১টি ফরম সংগৃহিত হয়।আরো সংগ্রহ হতে পারে বলে জানিয়েছে সূত্রটি।

One comment

আপনার মন্তব্য জানান