সেলফি তুলতে গিয়ে ট্রেনে কাটা পড়ে এসএসসি পরীক্ষার্থী নিহত

গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলায় সেলফি তোলার সময় ট্রেনে কাটা পড়ে এক এসএসসি পরীক্ষার্থী নিহত হয়েছে। নিহতের নাম কাওসার (১৬)।

বুধবার বিকালে রাজশাহী-জয়দেবপুর রেললাইনের সাকাশ্বর রেল ওভারব্রিজের পাশে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত কাওসার হোসেন গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের কোনাবাড়ী থানার পারিজাত এলাকার হরিণাচালা গ্রামের সানোয়ার হোসেনের বড় ছেলে। দুই ভাই আর এক বোনের মধ্যে সে সবার বড়। কাওসার চলতি এসএসসি পরীক্ষায় স্থানীয় রিচ ইন্টারন্যাশনাল স্কুল থেকে কোনাবাড়ী আরিফ কলেজ কেন্দ্রের পরীক্ষার্থী ছিল।

গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের ৮নং ওয়ার্ড কমিশনার সেলিম হোসেন বলেন, কাওসার আমার ভাতিজা। সে বন্ধুদের নিয়ে পাশের এলাকায় ভাণ্ডারি মেলায় যায়।

ট্রেনটি আসার পরই কাওসার পকেটে থাকা মোবাইল ফোনটা বের করেই সেলফি তুলতে ব্যস্ত হয়ে পড়ে। ততক্ষণে ট্রেনটি কাছে চলে এলেও রেলপথ থেকে কাওসার পা সরাতে পারেনি। ফলে ট্রেনের আঘাতে দুই পা এবং মুখমণ্ডল থেঁতলে গিয়ে ঘটনাস্থলেই মারা যায় কাওসার।

সহপাঠীরা তাকে রেলপথ থেকে দ্রুত সরিয়ে পাশে রাখে। পরে কাওসার হোসেনের বন্ধুরা তার পরিবারের অভিভাবকদের মোবাইল ফোনের মাধ্যমে ঘটনাটি জানায়।

পরে পরিবারের সদস্যরা ঘটনাস্থলে গিয়ে নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে বাড়িতে নিয়ে যায়।নিহতের সহপাঠী হৃদয় ইসলাম জানায়, কাওসার আমার পেছনে বসে মঙ্গলবার গণিত পরীক্ষা দিয়েছে। ওই সময় তাকে জানিয়েছিল, গণিত পরীক্ষা তার ভালো হয়েছে। এভাবে কাওসার আমাদের ছেড়ে চলে যাবে বুঝতে পারিনি।

রেলপথে স্লিপারের সঙ্গে পা ফসকে পড়ে যায়। এ সময় দ্রুতগামী ট্রেন তার দুটি পা কেটে গিয়ে মুখ থেঁতলে যায়। নিহত কাওসার হোসেন হলো গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের ৮নং ওয়ার্ড কমিশনার সেলিম হোসেনের ভাতিজা।

এ ব্যাপারে কালিয়াকৈর থানার মৌচাক পুলিশ ফাঁড়ির এসআই রনি কুমার সাহা জানান, রেললাইনের ঘটনা রেলপুলিশ দেখেন। আমরা এ বিষয়ে জানলেও কোনো পদক্ষেপ নিতে পারি না।

Leave a Reply

Your email address will not be published.